সব
বুধবার, ১৪ এপ্রিল ২০২১, ১ বৈশাখ ১৪২৮
DBBL Ad

মেসিকে গোলহীন রেখে রিয়ালের ক্লাসিকো জয়

জিদানের প্রত্যাশা বার্সেলোনাতেই থাকবেন মেসি

রিয়ালকে সেমিফাইনালের কাছে নিয়ে গেলেন ‘ভিনি’

চ্যাম্পিয়নস লিগ কোয়ার্টার ফাইনালের প্রথম লেগে লিভারপুলকে ৩-১ গোলে হারিয়ে সেমিফাইনালের পথে অনেকটাই এগিয়ে গেল রিয়াল মাদ্রিদ। জোড়া গোল করেছেন ভিনিসিয়ুস জুনিয়র, একটি আসেনসিও। লিভারপুলের হয়ে একটি গোল শোধ করেছেন মোহামেদ সালাহ-

আপডেট : ০৭ এপ্রিল ২০২১, ০৪:০৪

ম্যাচের আগে সংবাদ সম্মেলনে ইয়ু্ের্গেন ক্লপ বলেছিলেন, ‘চারদিকে বলাবলি হচ্ছে রিয়াল মাদ্রিদ ফেবারিট। ঠিক আছে আমরা চ্যালেঞ্জার(আন্ডারডগ) হয়েই খুশি।’ কথাটার মধ্যে একটু কটাক্ষ ছিল। কিন্তু রিয়াল মাদ্রিদের মাঠে কিক-অফের পর পরই দেখা গেল ক্লপের লিভারপুল ‘আন্ডারডগ’। ভিনিসিয়ুস জুনিয়র, করিম বেনজেমা, মার্কো আসেনসিওকে গড়া আক্রমণভাগ শুরু থেকেই হুল ফোটাচ্ছে! মাঝমাঠ নিয়ন্ত্রণ করছেন তিন মাস্টার কাসেমিরো, টনি ক্রুস ও লুকা মদরিচ। উল্টোদিকে লিভারপুল তাদের মান থেকে অনেক নিচে। দুই উইং ব্যাক আলেক্সান্ডার-আরনল্ড, রবার্টসন খাবি খাচ্ছেন। মাঝমাঠে চলছে ভুল পাসের ছড়াছড়ি। সুযোগ নিয়ে রিয়াল মাদ্রিদ ৩-১ গোলে কোয়ার্টার ফাইনাল জিতে সেমিফাইনালের পথে অনেকটাই এগিয়ে থাকল।

মঙ্গলবার রাতের এ ম্যাচে জোড়া গোল করেছেন তরুণ ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড ভিনিসিয়ুস জুনিয়র, একটি আসেনসিও। লিভারপুলের হয়ে একটি গোল ফিরিয়ে দিয়েছেন মোহামেদ সালাহ।

বাঁপ্রান্তে ভিনিসিয়ুসের গতির সঙ্গে কিছুতেই পেরে উঠছিলেন না আরনল্ড। তাকে টপকে বারবারই লিভারপুল বক্সে চলে যাচ্ছিলেন।  এটা দেখেই অনেক দূর থেকে লব ফেলেন ক্রুস। ‘ভিনি’ দ্রুত দৌড়ে গিয়ে সেটি বুকে নামিয়ে ডান পায়ের তীব্র শটে জড়িয়ে দেন জালে(১-০)। লিভারপুল গোলকিপার আলিসন বেকারের করার কিছুই ছিল না। ম্যাচর তখন ২৭ মিনিট। ৯ মিনিট পরই স্কোরলাইন ২-০। আক্রমণাত্মক ভিনির হাত থেকে বাঁচতে আরনল্ড বল ব্যাক হেড করেছিলেন। সেটি গিয়ে পড়ে আসেনসিওর পায়ের কাছে। সেই বল আয়ত্ত্বে নিতে গিয়ে হাবুডুবু খেলেন আলিসন, আসেনসিও অনেক সময় নিয়ে বল পাঠিয়ে দেন কাঙ্ক্ষিত ঠিকানায়।

মাঝমাঠে স্কিমার হিসেবে নাবি কেইটা করতে পারছিলেন না কিছুই। প্রথমার্ধের শেষদিকেই ক্লপ নিজের ভুল সংশোধন করে তাকে তুলে নামান থিয়াগো আলকানতারাকে। এতেই একটু খেলায় ফেরার রসদ পায় লিভারপুল। দ্বিতীয়ার্ধ শুরু করে তারা দারুণভাবে। অনেক আক্রমণাত্মক তখন তারা, মাঝমাঠে বলের নিয়ন্ত্রণ করতে পারছিল ভালো। ডিয়োগো জোটার দারুণ এক ক্রসে দুর্দান্ত ফিনিশ করেন সালাহ। ৫১ মিনিটে পাওয়া এই গোল লিভারপুলকে খেলায় ফেরার সুযোগ করে দেয়। তাদের আরেকটি গোলও আসি আসি করছিল। আর ঠিক সেই সময়ই আবার লিভারপুলের রক্ষণাত্মক ভুল এবং গুনতে হয় মাশুল। মদরিচের পাসে ভিনিসিয়ুস বল পেয়ে সেন্টারব্যাক ফিলিপসের দুপায়ের ফাঁক গলে বল ঠেলে দেন জালে (৩-১)। এই গোলটা আলিসনের মতো গোলকিপারের ঠেকাতে না পারা একটা লজ্জার।

রিয়াল মাদ্রিদের সামনে দাঁড়ালেই লিভারপুলের গোলকিপারদের কী যেন হয়। ঠিক ২০১৮ চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনালে লরিস কারিয়ুসের মতো হয়তো নয়, কিন্তু আলিসন এ ম্যাচে সেই স্মৃতির অনেকটাই ফিরিয়ে এনেছেন। আর ১৩ বারের ইউরোপসেরা রিয়ালও লিভারপুলকে যেন স্মরণ করিয়ে দিয়েছে, এটা চ্যাম্পিয়নস লিগ, কোয়ার্টার ফাইনাল থেকেই এই টুর্নামেন্টে শিরোপার সুবাস  পেতে থাকা যাদের অভ্যেস।

সের্জিও রামোস পায়ের পেশির চোটে আগে থেকেই নেই, ম্যাচ শুরুর কয়েক ঘণ্টা আগে রক্ষণভাগের আরেক নির্ভরতা ভারান করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। প্রচণ্ড উদ্বেগের মধ্যেই পড়ে গিয়েছিল রিয়াল। কিন্তু মাঠে নামার পর জিদানের দলের মধ্যে সেই উদ্বেগের ছিটেফোঁটাও নেই। সেন্টারব্যাক হিসেবে দুর্দান্ত খেললেন নাচো ও মিলিতাও। কাসেমিরো রক্ষণাত্মক পর্দায় ঘিরে রাখলেন পরম আস্থার সঙ্গে। আর ওপরে ভিনিসিয়ুস তার সর্পিল গতিতে ধ্বংস করলেন লিভারপুলের রক্ষণ।

একটা অ্যাওয়ে গোল লিভারপুলকে এখনো হয়তো আশায় রাখছে। কিন্তু তারা নিজেরাও জানে সেমিফাইনালে উঠতে হলে নিজেদের মাঠেও কোয়ার্টার ফাইনালের দ্বিতীয় লেগে প্রায় পাহাড় ডিঙোতে হবে।

/পিকে/ 

 

মেসিকে গোলহীন রেখে রিয়ালের ক্লাসিকো জয়

মেসিকে গোলহীন রেখে রিয়ালের ক্লাসিকো জয়

জিদানের প্রত্যাশা বার্সেলোনাতেই থাকবেন মেসি

জিদানের প্রত্যাশা বার্সেলোনাতেই থাকবেন মেসি

ঘুচবে মেসির রোনালদো-অভিশাপ?

ঘুচবে মেসির রোনালদো-অভিশাপ?

শ্রীলঙ্কা সফরের দল ঘোষণা, নতুন তিন মুখ

শ্রীলঙ্কা সফরের দল ঘোষণা, নতুন তিন মুখ

হ্যালান্ডের অটোগ্রাফ দাতব্য সংস্থায় দেবেন রেফারি

হ্যালান্ডের অটোগ্রাফ দাতব্য সংস্থায় দেবেন রেফারি

একই তারিখে পৃথিবীতে ‘গ্রিজি’র তৃতীয় সন্তান

একই তারিখে পৃথিবীতে ‘গ্রিজি’র তৃতীয় সন্তান

Islami Bank Ad