সব
শুক্রবার, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১৩ ফাল্গুন ১৪২৭
DBBL Ad

এটিএম শামসুজ্জামান অভিনয়ের মধ্য দিয়ে দেশবাসীর হৃদয়ে বেঁচে থাকবেন: প্রধানমন্ত্রী

অভিনেতা এটিএম শামসুজ্জামান আর নেই

এটিএম শামসুজ্জামানের মৃত্যু সাংস্কৃতিক অঙ্গনের জন্য অপূরণীয় ক্ষতি: রাষ্ট্রপতি

জনপ্রিয় চলচ্চিত্র ও টিভি অভিনেতা এটিএম শামসুজ্জামানের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। তিনি মরহুমের আত্মার মাগফিরাত কামনা এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা প্রকাশ করেন।

আপডেট : ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১৩:০১

জনপ্রিয় চলচ্চিত্র ও টিভি অভিনেতা এটিএম শামসুজ্জামানের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। তিনি মরহুমের আত্মার মাগফিরাত কামনা এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা প্রকাশ করেন।

শনিবার (২০ ফেব্রুয়ারি) গণমাধ্যমে পাঠানো শোক বার্তায় রাষ্ট্রপতি বলেন, ‘এটিএম শামসুজ্জামানের মৃত্যু দেশের সাংস্কৃতিক অঙ্গনের জন্য এক অপূরণীয় ক্ষতি। অসাম্প্রদায়িক চেতনার বিকাশে তার অবদান মানুষ শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করবে।’

এটিএম শামসুজ্জামান (আবু তাহের মোহাম্মদ শামসুজ্জামান) শনিবার সকাল ৮টা ১০ মিনিটে রাজধানীর সূত্রাপুরের নিজ বাসায় শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন। বাদ আসর সূত্রাপুর মসজিদে দ্বিতীয় জানাজা শেষে জুরাইন কবরস্থানে তাকে দাফন করা হবে বলে জানা গেছে।

বুধবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) পুরান ঢাকার আজগর আলী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল এটিএম শামসুজ্জামানকে। তিনি শ্বাসতন্ত্র ও পরিপাকতন্ত্রের জটিলতায় ভুগছিলেন। তার অক্সিজেন লেভেল কমে গিয়েছিল। ১৯৬৫ সালে অভিনেতা হিসেবে চলচ্চিত্রে আগমন হয় এটিএম শামসুজ্জামানের। ১৯৭৬ সালে চলচ্চিত্রকার আমজাদ হোসেনের ‘নয়নমণি’ সিনেমায় খল চরিত্রে অভিনয় করে আলোচনায় আসেন তিনি।

উইকিপিডিয়ার  তথ্যমতে, অভিনয়ের জন্য তিনি আজীবন সম্মাননাসহ জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন ছয়বার। এর মধ্যে দায়ী কে? (১৯৮৭) চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য শ্রেষ্ঠ অভিনেতা বিভাগে; ম্যাডাম ফুলি (১৯৯৯), চুড়িওয়ালা (২০০১) ও মন বসে না পড়ার টেবিলে (২০০৯) চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য শ্রেষ্ঠ কৌতুক অভিনেতা বিভাগে; এবং চোরাবালি (২০১২) চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেতা বিভাগে পুরস্কৃত হন। এ ছাড়া ৪২তম জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারের সময় তিনি আজীবন সম্মাননায় ভূষিত হয়েছিলেন। শিল্পকলায় অবদানের জন্য ২০১৫ সালে তিনি বাংলাদেশের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রাষ্ট্রীয় সম্মাননা একুশে পদকে ভূষিত হন।

এটিএম শামসুজ্জামান অভিনীত সিনেমাগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে- মলুয়া, বড় বউ, অবুঝ মন, ওরা ১১ জন, শ্লোগান, স্বপ্ন দিয়ে ঘেরা, সংগ্রাম, ভুল যখন ভাঙ্গলো, চোখের জলে, লাঠিয়াল, অভাগী, নয়নমনি, যাদুর বাঁশি, গোলাপী এখন ট্রেনে, অশিক্ষিত, সূর্য দীঘল বাড়ী, ছুটির ঘণ্টা, লাল কাজল, পুরস্কার, প্রিন্সেস টিনা খান, রামের সুমতি, ঢাকা ৮৬, দায়ী কে?, রাজলক্ষ্মী শ্রীকান্ত, দোলনা, পদ্মা মেঘনা যমুনা, অজান্তে, স্বপ্নের নায়ক, তোমার জন্য পাগল, ম্যাডাম ফুলি, চুড়িওয়ালা, শ্বশুরবাড়ী জিন্দাবাদ, জামাই শ্বশুর, আধিয়ার, শাস্তি, মোল্লাবাড়ির বউ, হাজার বছর ধরে, আমার স্বপ্ন তুমি, দাদীমা, আয়না, ডাক্তার বাড়ী, চাঁদের মতো বউ, মন বসে না পড়ার টেবিলে প্রমুখ।


/ওআর/

Islami Bank Ad
এটিএম শামসুজ্জামান অভিনয়ের মধ্য দিয়ে দেশবাসীর হৃদয়ে বেঁচে থাকবেন: প্রধানমন্ত্রী

এটিএম শামসুজ্জামান অভিনয়ের মধ্য দিয়ে দেশবাসীর হৃদয়ে বেঁচে থাকবেন: প্রধানমন্ত্রী

অভিনেতা এটিএম শামসুজ্জামান আর নেই

অভিনেতা এটিএম শামসুজ্জামান আর নেই